শনিবার ৪ঠা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>

ভূরুঙ্গামারীতে বালু পড়ে ভরাট জলমহাল, ইজারা নিয়ে বিপাকে মৎস্যজীবিরা

মোঃ মাহবুব হোসেন    |   রবিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২৩ | প্রিন্ট

ভূরুঙ্গামারীতে বালু পড়ে ভরাট জলমহাল, ইজারা নিয়ে বিপাকে মৎস্যজীবিরা
ভূরুঙ্গামারী (কুড়িগ্রাম) : কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে বন্যার পানিতে বালু পড়ে জলমহাল ভরাট হয়ে যাওয়ায় ইজারা নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছে মৎস্যজীবি সমিতির সদস্যরা। ইজারাকৃত জলমহালে মাছ চাষ করতে না পেরে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন প্রায় ২৩ জন মৎস্যজীবি।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে  জানাগেছে, উপজেলার তিলাই ইউনিয়নের প্রায় ১২ একর আয়তনের দক্ষিণ তিলাই জলমহালটি ইজারা নেয় চর ভূরুঙ্গামারী ইউনিয়নের মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি লিমিটেড। উপজেলা প্রশাসনের নিকট হতে গত বছর এপ্রিল মাসে ১০লাখ আশি হাজার টাকায় তিন বছরের জন্য ইজারার নেয়। যার প্রথম কিস্তি হিসেবে তিন লাখ ষাট হাজার টাকা সরকারি দপ্তরে জমা করেছেন। কিন্তু ইজারা নেবার পর গত বছরের দফায় দফায় বন্যায়  দুধকুমার নদের ভাঙ্গনে মুখে পড়ে জলমহাল ছড়াটি বালু পড়ে ভরাট হয়ে যায়। এতে করে জলমহালটি মাছ চাষের জন্য অনুপযোগি হয়ে পড়ে। মাছ চাষ করতে না পেরে অর্থনৈতিক ক্ষতির মুখে পড়েন সমিতির সদস্যরা। ফলে আর্থিক ক্ষতি সামলিয়ে উঠার জন্য প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেবার জন্য  মৎস্যজীবি সমবায় সমিতির সভাপতি উপজেলা এবং জেলা প্রশাসনকে গত বছরের ১১অক্টাবর একটি লিখিত ভাবে জানায়। কিন্তু দীর্ঘদিনেও কোন পদক্ষেপ না নেয়ায় হতাশ মৎস্যজীবি সমবায় সমিতি সদস্যরা। দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবার দাবী জানান সমিতির সদস্যরা।
সমিতির সদস্য মাহামুদুল আলম বলেন, প্রায় ১২ একর আয়তনের জলমহালটি ইজারা নেবার পর মাছ চাষ করতে পারিনি। এরমধ্যে বন্যা এসে ছড়াটি বালুতে ভরাট হয়ে গেছে। এখন ছড়ার কোন অস্তিত নেই বললেই চলে। ইউএনও স্যারের সাথে দেখা করে কথা বলেছি।  কিন্তু আজ পর্যন্ত কেউ ছড়াটি দেখার জন্য আসেনি।
সমিতির সভাপতি সহিদ আলী বলেন, গত বছর  ১লা বৈশাখ থেকে তিন বছরের জন্য ছড়াটি ইজারা নেয়া হয়েছে। কিন্তু বন্যা এসে বালুতে ছড়াটি ভরাট হয়ে যায়। এতে করে আমরা আর মাছ চাষ করতে পারছি না। সমিতির ২৩জন সদস্য ধার দেনা করে ইজারা নিলেও কোন লাভ হয়নি। উল্টো এখন ধারদেনা পরিশোধ করা এবং সরকারকে বাকি টাকা দেয়া নিয়ে চিন্তায় আছি। জেলা ও উপজেলা প্রশাসনকে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবার জন্য লিখিতভাবে জানিয়েও কোন লাভ হয়নি। আমরা গরিব মৎস্যজীবি সমবায় সমিতির সদস্যরা খুব অসহায় হয়ে পড়েছি।
এই বিষয়ে কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক সাইদুল আরীফ বলেন, দক্ষিণ তিলাই জলমহালটি যে মৎস্যজীবি সমিতি ইজারা নিয়েছে তাদের সমস্যার কথা জানলাম। এই বিষয়ে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেয়া হবে যাতে করে ইজারা নেয়া মৎস্যজীবি সমিতি এর সুফল পেতে পারেন।
Facebook Comments Box
advertisement

Posted ০৯:৩৭ | রবিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২৩

Swadhindesh -স্বাধীনদেশ |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

Advisory Editor
Professor Abdul Quadir Saleh
Editor
Advocate Md Obaydul Kabir
যোগাযোগ

Bangladesh : Moghbazar, Ramna, Dhaka -1217

ফোন : Europe Office: 560 Coventry Road, Small Heath, Birmingham, B10 0UN,

E-mail: news@swadhindesh.com, swadhindesh24@gmail.com

%d bloggers like this: