শুক্রবার ১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গাজা ইস্যুতে জাতিসংঘ-যুক্তরাষ্ট্রকে পাত্তা দিচ্ছে না ইসরায়েল!

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বুধবার, ২৭ মার্চ ২০২৪ | প্রিন্ট

গাজা ইস্যুতে জাতিসংঘ-যুক্তরাষ্ট্রকে পাত্তা দিচ্ছে না ইসরায়েল!

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে অবিলম্বে গাজায় যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হলেও গোঁড়ামি করে নিরীহ ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েল। বর্বর এই জাতির মুহুর্মুহু হামলায় গাজাবাসী এখন শুধু একটু বেঁচে থাকার স্বপ্নই দেখেন। হামলার মুখে তীব্র খাবার সংকটে ধুঁকতে থাকা ফিলিস্তিনি মুসলমানদের ওপর পবিত্র রমজান মাসেও ক্ষুধার্ত হায়েনার মতো হামলা চালাচ্ছে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সেনারা। এক সময় ইসরায়েলিদের পক্ষে কথা বলা দেশগুলোও এখন নিন্দা জানাচ্ছে গাজা হামলার। বিশেষ করে রমজানে নিরীহ ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলার কারণে রাজনৈতিকভাবে পরাজিত হচ্ছে ইসরায়েল।

যদিও আগে থেকেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ইসরায়েলকে সতর্ক করে বলেছেন, রাফায় বড় স্থল হামলা পরিত্যাগ করতে হবে ইসরায়েলকে। তা নাহলে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নিঃসঙ্গ হয়ে পড়বে তারা। এরপর জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে অবিলম্বে যুদ্ধবিরতি প্রস্তাবে ভোট দেওয়া থেকে বিরত ছিল যুক্তরাষ্ট্র। এজন্য তাকে কথা শুনিয়েছে ইসরায়েল। তা সত্ত্বেও রাফায় স্থল হামলা চালানোর পরিকল্পনা বাদ দেওয়ার আহ্বান জানায় যুক্তরাষ্ট্র

অপর দিকে মঙ্গলবার জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত রবার্ট উড বলেছেন, হামাসকে পরাজিত করার যে লক্ষ্য ইসরায়েলের, আমরাও সেই দৃষ্টিভঙ্গি শেয়ার করি। কিন্তু হামাসকে পরাজিত করার জন্য রাফায় বড় রকমের স্থল অভিযান সেই পথ নয়। ফলে বিপুল সংখ্যক বেসামরিক সাধারণ মানুষ নিহত হবেন। মানবাধিকারের সহযোগিতায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবে। তাই ইসরায়েলের জন্য আমাদের পরামর্শ হলো, আরও ভালো উপায় আছে।

জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত রবার্ট উড বলেন, গাজায় নাটকীয়ভাবে মানবিক ত্রাণ পৌঁছে দিতে কাজ করছে ওয়াশিংটন ডিসি। সেখানে সাধারণ মানুষের যতটুকু প্রয়োজন সেই পরিমাণ সহায়তা পৌঁছানো যাচ্ছে না। বাস্তবতা হলো মানবিক ত্রাণ সহায়তা না পৌঁছানোর কারণে শিশুরা অনাহারে মারা যাচ্ছে। গাজার শিশুদের অপুষ্টিতে মারা যাওয়া উচিৎ নয়। গাজার শতভাগ মানুষ ভয়াবহ খাদ্য সংকটে ভুগছেন।

যদিও যুক্তরাষ্ট্র এবং জাতিসংঘের কোনো কথাই কানে নিচ্ছে না ইসরায়েলিরা। গাজার রাফায় ভয়াবহ হামলা চালাচ্ছে নেতানিয়াহুর সৈন্যরা। তাদের দাবি— চলতি মাসে বিমান হামলায় হামাস কমান্ডার মারওয়ান ইসাকে হত্যা করেছে তারা। তবে হামাসের একজন পদস্থ কর্মকর্তা বলেছেন, এই মৃত্যুর পক্ষে কোনো তথ্যপ্রমাণ নেই। শত্রুরা মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে। ওদিকে দু’তিন দিন ধরেই খান ইউনুসে একটি হাসপাতালে ঘিরে রেখেছে ইসরায়েলি ট্যাংক ও সাজোয়া যান।

রেডক্রস বলেছে, সেনাবাহিনীর অপারেশনের কারণে সেখানে তারা কোনো সুবিধা বা সেবা দিতে পারছে না। ৭ অক্টোবর হামাসের রকেট হামলার পর গাজায় ইসরায়েলি হামলায় নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে কমপক্ষে ৩২ হাজার ৪১৪ জনে। এছাড়া আহতের সংখ্যাও নেহায়েত কম নয়, ৭৪ হাজার ৭৬৭ জনে দাঁড়িয়েছে এই সংখ্যা। সূত্র: রয়টার্স, বিবিসি, আল-জাজিরা
Facebook Comments Box
advertisement

Posted ০৬:০৯ | বুধবার, ২৭ মার্চ ২০২৪

Swadhindesh -স্বাধীনদেশ |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement
Advisory Editor
Professor Abdul Quadir Saleh
Editor
Advocate Md Obaydul Kabir
যোগাযোগ

Bangladesh : Moghbazar, Ramna, Dhaka -1217

ফোন : Europe Office: 560 Coventry Road, Small Heath, Birmingham, B10 0UN,

E-mail: news@swadhindesh.com, swadhindesh24@gmail.com