শুক্রবার ২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>

হেবরনে ইসরায়েলিদের হামলায় অসংখ্য ফিলিস্তিনি আহত

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   রবিবার, ২০ নভেম্বর ২০২২ | প্রিন্ট

হেবরনে ইসরায়েলিদের হামলায় অসংখ্য ফিলিস্তিনি আহত

হেবরনে ইসরায়েলি বসতি স্থাপনকারীদের হামলায় অসংখ্য ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। স্থানীয় এক মানবাধিকার কর্মী এসব তথ্য জানিয়েছেন। ইহুদিদের সাবাথ উৎসবের সময় এ ঘৃণ্য হামলা হয়।

 

আজ ইয়েনি শাফাকের প্রতিবেদন অনুসারে, শুক্রবার ইসরায়েলি সেনাবাহিনী ফিলিস্তিনিদের হেবরনের ইব্রাহিমি মসজিদে প্রবেশে দুই দিনের জন্য নিষেধাজ্ঞা দেয়। এ মসজিদে ইহুদিদের সাবাথ উৎসব পালনের জন্য এ নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। এরপর শনিবার মসজিদে থাকা ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের ওপর হামলা হয়। এখন ওই অঞ্চলে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।

ফিলিস্তিনি মানবাধিকার কর্মী আরেফ জাবের বলেন, ‘কট্টরপন্থী ইসরায়েলি এমপি ইতামার বেন-গভিরের নেতৃত্বে হাজার হাজার ইহুদি বসতি স্থাপনকারী হেবরনের ওল্ড সিটিতে ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলা চালায়।

 

আনাদোলু এজেন্সিকে জাবের বলেন, ‘ইহুদি বসতি স্থাপনকারী ও দেশটির সৈন্যদের দ্বারা শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হওয়ার পর অসংখ্য ফিলিস্তিনি ক্ষত-বিক্ষত ও আহত হয়েছে।

 

জানা গেছে, এ সময় বেশ কয়েকজন ফিলিস্তিনিকে ইসরায়েলি বাহিনী আটক করেছে।

 

আনাদোলু এজেন্সির একজন প্রতিবেদকের মতে, ইসরায়েলি সেনাবাহিনী সেখানকার বেশ কয়েকটি রাস্তা অবরোধ করেছে এবং ওই স্থানে লোহার ঢিবি স্থাপন করেছে। এছাড়া হেবরনের ওল্ড সিটিতে অতিরিক্ত সেনাবাহিনী মোতায়েন করেছে তারা।

 

ফিলিস্তিনবিরোধী বেন-গভির কট্টরপন্থী হিসেবে পরিচিত। তিনি ফিলিস্তিনিদের ব্যাপারে উগ্রবাদী মতামত পোষণ করেন। এর আগে তিনি ফিলিস্তিনিদের বাস্তুচ্যুত করার আহ্বান জানিয়েছিলেন। তিনি ফিলিস্তিনের শেখ জাররাহ পাড়ায় একটি অফিস স্থাপনের পর অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমে উত্তেজনা সৃষ্টি করেছিলেন।

 

পূর্ব জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদ কমপ্লেক্সে মুসল্লিদের হেনস্থা করতে বেন-গভির বারবার ইসরায়েলি বসতি স্থাপনকারীদের নেতৃত্ব দিয়েছেন।

 

এর আগে গত সপ্তাহে ইসরায়েলের প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হারজোগ একটি ফাঁস হওয়া অডিওতে বলেছিলেন, ‘বেন-গভিরের উগ্রপন্থী দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে পুরো বিশ্ব চিন্তিত।’ বেন-গভির আসন্ন সরকারে মন্ত্রী হবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

 

হেবরনের ইব্রাহিমি মসজিদ কমপ্লেক্সটি নবী ইব্রাহিম, ইসহাক এবং আইয়ুবের সমাধিস্থল বলে মনে করা হয়। এ স্থানটি মুসলিম এবং ইহুদিদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ।  সূত্র : ইয়েনি শাফাক

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ০৭:২৫ | রবিবার, ২০ নভেম্বর ২০২২

Swadhindesh -স্বাধীনদেশ |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement
Advisory Editor
Professor Abdul Quadir Saleh
Editor
Advocate Md Obaydul Kabir
যোগাযোগ

Bangladesh : Moghbazar, Ramna, Dhaka -1217

ফোন : Europe Office: 560 Coventry Road, Small Heath, Birmingham, B10 0UN,

E-mail: news@swadhindesh.com, swadhindesh24@gmail.com

%d bloggers like this: