মঙ্গলবার ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>

বিয়ের জন্য চাপ দেওয়ায় হত্যারকান্ডের শিকার স্বামী পরিত্যক্তা মলিনা 

এম এম হারুন আল রশীদ হীরা   |   রবিবার, ২১ জানুয়ারি ২০২৪ | প্রিন্ট

বিয়ের জন্য চাপ দেওয়ায় হত্যারকান্ডের শিকার স্বামী পরিত্যক্তা মলিনা 

নওগাঁ:  নওগাঁর মান্দায় বিয়ের জন্য চাপ দেওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে হত্যাকান্ডের শিকার হয়েছেন মলিনা বিবি (৫০) নামের এক নারী। দীর্ঘ ৬ মাস ১০ দিন পর আসামি সোনাবর মৃধাকে (৪৫) গ্রেফতারের পর এ হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হয়েছে থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত সোনাবর মৃধা মান্দা উপজেলার ভালাইন ইউনিয়নের চকশ্রীকৃষ্ণ গ্রামের মৃত অফির উদ্দিন মৃধার ছেলে। নওগাঁর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট টিপু মুন্সীর আদালতে এ হত্যাকান্ডের দায় শিকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন তিনি। হত্যাকান্ডের শিকার মলিনা বিবি উপজেলার মৈনম ইউনিয়নের চকদারপাড়া গ্রামের জিয়ার উদ্দিনের মেয়ে। স্বামী পরিত্যক্তা এই নারী সতিহাটে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাসসহ বাজারের একটি তুলার মিলে শ্রমিকের কাজ করতেন। পাশাপাশি অন্যের সাহায্য সহযোগিতা নিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন তিনি।

আসামি সোনাবর মৃধা জবানবন্দিতে উল্লেখ করেন, মলিনা বিবির সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বিয়ে করার জন্য গত বছরের ৬ জুলাই মলিনা বিবিকে মোবাইলফোনে তার কাছে আসার জন্য প্রলুদ্ধ করে  ডেকে নেন গ্রেফতারকৃত সোনাবর মৃধা। এরপর সারাদিন তারা দুজন বিভিন্ন এলাকায় ঘোরাফেরা করেন। ওইদিন সন্ধ্যার পর সোনাবরকে বিয়ের জন্য চাপ দেন মলিনা বিবি। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বাগ-বিতন্ডা ও তুমুল কথা-কাটাকাটি শুরু হয়ে যায়। পরে বিয়ের কথা বলে ভালাইন ইউনিয়নের আয়াপুর পাগলিতলা মন্ডপের কাছে নিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে মলিনা বিবিকে। মৃত্যু নিশ্চিত করে তার লাশ পাগলিতলা মন্ডপের পাশে একটি ঘাসখেতে ফেলে আত্মগোপনে চলে যায় সোনাবর মৃধা।

এ বিষয়ে মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক কাজী বলেন, মলিনা বিবির লাশ উদ্ধারের পর থেকে ক্লুলেস এ হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনে নানাভাবে তৎপর হয়ে ওঠে পুলিশ। কিন্তু আসামি সোনাবর মৃধা বারবার স্থান পরিবর্তন করায় তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হচ্ছিল না। পরে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে ফরিদপুর জেলা কোতয়ালি থানা পুলিশের সহায়তায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত সোনাবর মৃধা হত্যাকান্ডের দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত বছর ২০২৩ সালের ৭ জুলাই নওগাঁর মান্দা উপজেলার ভালাইন ইউনিয়নের আয়াপুর পাগলিতলা মন্ডপের পাশের একটি ঘাসখেত থেকে মলিনা বিবির লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। এ ঘটনায় মলিনার ছেলে আবদুল মজিদ বাদি হয়ে মান্দা থানায় একটি মামলা করেন।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১৩:৩০ | রবিবার, ২১ জানুয়ারি ২০২৪

Swadhindesh -স্বাধীনদেশ |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

Advisory Editor
Professor Abdul Quadir Saleh
Editor
Advocate Md Obaydul Kabir
যোগাযোগ

Bangladesh : Moghbazar, Ramna, Dhaka -1217

ফোন : Europe Office: 560 Coventry Road, Small Heath, Birmingham, B10 0UN,

E-mail: news@swadhindesh.com, swadhindesh24@gmail.com