রবিবার ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম >>
শিরোনাম >>

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আদালতের যেন একটা টেলিপ্যাথিক সম্পর্ক: রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০২৪ | প্রিন্ট

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আদালতের যেন একটা টেলিপ্যাথিক সম্পর্ক: রিজভী

কোটা আন্দোলনের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী  বলেছেন, ‘আপনি না পরিপত্র জারি করেছিলেন যে কোটা থাকবে না। আবার আদালত থেকে এটা হলো কেন? আমাদের কাছে তো মনে হয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে আদালতের যেন একটা টেলিপ্যাথিক সম্পর্ক আছে। অর্থাৎ শেখ হাসিনা যেটা ভাবেন আদালতের রায়ের মধ্য দিয়ে সেটা চলে আসে। এটাই তো আমরা দেখছি। সরকার যেটা চান সেটা আদালতের রায়ের মধ্য দিয়ে চলে আসে। এই টেলিপ্যাথিক সম্পর্কটা হয় কি করে?’

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) নয়াপল্টনে নিখোঁজ ছাত্রদল নেতা আতিকুর রহমান রাসেলের সন্ধানের দাবিতে ছাত্রদল আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, ‘এই যে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা তাদের ক্লাস ছেড়ে প্রতিদিন রাজপথে নেমে আসছে এটা কি অন্যায়, এটা কি অন্যায্য?’

সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, রাসেলের সন্ধানের দাবিতে তার পিতার যে আকুতি আমরা এখানে শুনলাম। এভাবেই বাংলাদেশের আকাশে প্রতিনিয়ত অসংখ্য উল্কাপাত ঘটিয়েছেন এই ডামি সরকার, দখলদার সরকারের প্রধানমন্ত্রী। আমরা কোন দেশে বাস করি? এমন একটি দেশ যেখানে মনে হচ্ছে চারিদিকে পাহাড়ের গুহা, সেই পাহাড়ের গুহা থেকে দস্যুদল এসে কোমলমতি ছাত্রদেরকে ধরে নিয়ে যাবে, তরুণদেরকে ধরে নিয়ে যাবে, নিরুদ্দেশ করে দিবে।

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, আমরা এমন একটি মাফিয়া সিন্ডিকেটের অধীনে বসবাস করছি যেখানে যারা প্রতিবাদের ভাষা হয়, প্রতিবাদ করে তাদেরকে নিরুদ্দেশ করে দেওয়া, অন্যায়ের প্রতিবাদকারীদের রক্তাক্ত লাশ নদীর ধারে খালের ধারে নালার ধারে পড়ে থাকে। আমরা এমন একটি দেশে বাস করছি যে দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং তিনি এমন একটি সংস্কৃতি তৈরি করেছেন, মনে হয় তিনি ডামি সরকারের প্রধানমন্ত্রী নয় একটি মাফিয়া সিন্ডিকেটের গডমাদার হিসেবে তিনি বাংলাদেশের দায়িত্ব পালন করছেন।

রিজভী বলেন, আজকে আতিকুর রহমান রাসেল নেই আমাদের কাছে। সবাই জানে তাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাই ধরে নিয়ে গেছে। খবরের কাগজেও এসেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর লোকেরাই তাকে ধরে নিয়ে গেছে। কিন্তু এখনো তাকে হাজির করছেনা; না আদালতে, না তার পরিবারের কাছে। মা—হারা একটি ছেলে কোথায় খাচ্ছে, কোথায় ঘুমাচ্ছে, কোন জায়গায় শুয়ে আছে, কোন আয়নাঘরে তাকে বন্দি করে রাখা হয়েছে আমরা জানি না।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী এমন একটি পরিবেশ সৃষ্টি করেছেন তার রাষ্ট্রীয় অপকর্ম ঢাকার জন্য যে অত্যন্ত সুকৌশলে তিনি একটার পর একটা ইস্যু তৈরি করছেন, মানুষ যেন ওই ইস্যুর দিকে ধাবিত হয়, ওইদিকে তার যেন চোখটা পড়ে থাকে। উনি যে আজকে চারিদিক থেকে ব্যর্থ হয়েছেন, আজকে যে রাজকোষ শূন্য। ১৫ দিনের জন্য কোনো জিনিস যে আমদানি করতে পারবে না, সেই রকম একটি পরিস্থিতির মধ্যে তিনি দেশকে নিয়ে গেছেন। এখন তিনি ভিক্ষার ঝুলি নিয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন, আবার ফিরে আসছেন খালি হাতে। ২০ মিলিয়ন ডলার তিনি চাইলেন চীনের কাছ থেকে। প্রতিশ্রুতি পেয়েছেন মাত্র এক মিলিয়ন ডলারের। উনি যাত্রা সংক্ষিপ্ত করে ফিরে এসেছেন। অজুহাত দিচ্ছেন অন্য কথার, কিন্তু অন্তর্নিহিত যে বিষয়টি সেটি সবার জানা হয়ে গেছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে বিএনপির এই শীর্ষনেতা বলেন, ‘আপনি কি তাহলে এই ভয়ংকর অর্থনৈতিক বিপর্যয় ঢাকার জন্য আতিকুর রহমান রাসেলদেরকে গুম করছেন? আপনি কি বেনজীর কাণ্ড, আপনি কি আজিজ কাণ্ড, আপনি কি মতিউর কাণ্ড এগুলোকে ঢাকার জন্য এসব করছেন? আমরা পৌরনিক কাহিনী শুনেছি আমরা যে গল্প কথা শুনেছি সেগুলো কেউ হার মানাচ্ছে। বেনজীরের টাকা কত? বেনজীর কত জমি দখল করেছে? আমরা গণমাধ্যমে যা শুনতে পাচ্ছি তার চাইতেও তো এদের সম্পদ বেশি হতে পারে যদি পিএসসির একজন ড্রাইভার চতুর্থ শ্রেণীর চাকরিজীবী তার যদি ৬০ থেকে ৭০ কোটি টাকার মতো সম্পদ পাওয়া যায় তাহলে তাদের আরও কত বেশি।’

তিনি বলেন, ‘আমরা প্রায়ই শুনি অমুখ ডিসি অমুখ বিশ্ববিদ্যালয়ের অমুখ হলের ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। অমুখ এসপি সে আরেকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ করত। এত ছাত্রলীগ ডিসি, এসপি, ডেপুটি সেক্রেটারি জয়েন্ট সেক্রেটারি হয় কী করে? এই প্রশ্নপত্র ফাঁসের মধ্য দিয়ে এই কাজগুলো করা হয়েছে।’

গুমের পার্মানেন্ট সংস্কৃতি তৈরি করেছে এই মাফিয়া সরকার মন্তব্য করে রিজভী আরও বলেন, ‘শুধুমাত্র নিজের শ্বেত পাথরের সিংহাসনকে রক্ষা করার জন্যই আজকে তিনি গুম-খুনের পদ্ধতি অবলম্বন করেছেন। কারণ, অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন সবচাইতে বড় আতঙ্ক হচ্ছে শেখ হাসিনার জন্য। এই আতঙ্কে থেকে নিজেকে নিরাপদ করার জন্য জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল এবং গণতন্ত্রকামী নেতাদেরকে তিনি গুম করাচ্ছেন।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক রকিবুল ইসলাম বকুল, ছাত্রদলের সভাপতি রাকিবুল ইসলাম রাকিব, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন নাসির, সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক শ্যামল মালুম, সাংগঠনিক সম্পাদক আমান উল্লাহ আমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১০:১৭ | বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০২৪

Swadhindesh -স্বাধীনদেশ |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

(773 বার পঠিত)
advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

Advisory Editor
Professor Abdul Quadir Saleh
Editor
Advocate Md Obaydul Kabir
যোগাযোগ

Bangladesh : Moghbazar, Ramna, Dhaka -1217

ফোন : Europe Office: 560 Coventry Road, Small Heath, Birmingham, B10 0UN,

E-mail: news@swadhindesh.com, swadhindesh24@gmail.com