September 30, 2020, 4:13 pm

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :
দেশ ও বিদেশের প্রতিটি থানা, উপজেলা, জেলা, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য প্রতিনিধি আবশ্যক । আগ্রহী প্রার্থীদের বায়োডাটা ও ছবিসহ আবেদন করতে অনুরোধ জানানো যাচ্ছে । বরাবর, সম্পাদক, দৈনিক স্বাধীনদেশ । news@swadhindesh.com
সংবাদ শিরোনাম :
সরকার মিথ্যা ঘটনা নিয়ে নাটক বানিয়েছে : সোহেল বাংলাদেশ কখনো জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় দেয়নি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বাঁচতে চায় অর্নব মোরেলগঞ্জে বালুর খাদ থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার ‘খালেদা জিয়া চাইলে যুক্তরাজ্যে চিকিৎসা সম্ভব’ করোনা ২৪ ঘণ্টায় কাড়ল ৩২ প্রাণ, শনাক্ত ১৪৩৬ রোগী আ.লীগকে সমানতালে টেক্কা দিচ্ছে বিএনপি : অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল ‘ইনডেমনিটি’ একটা চটি, বস্তাপচা নাটক : রুহুল কবির রিজভী দেশের কোথাও মা-বোনেরা নিরাপদ নয় : মাহমুদুর রহমান মান্না মিন্নির মৃত্যুদণ্ড, যা বললেন বাবা রিফাত হত্যা: মিন্নিসহ ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড বিএনপির আন্দোলন এখন ফেসবুক স্ট্যাটাসে : ওবায়দুল কাদের বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপের সম্ভাবনা বিশ্বে ক্ষুধার্ত মানুষ বাড়ছে আজও কারওয়ান বাজারে টিকিটের জন্য সৌদি প্রবাসীরা ভিড় ২৭ বছর পর বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলার রায় আজ রিফাত হত্যার রায় আজ, আদালতে মিন্নি প্রচারের দ্বিতীয় দিনে হামলার শিকার বিএনপিপ্রার্থী সালাউদ্দিন! আ.লীগ নেতাদের মাস্ক পরে মুখ ঢাকার পরামর্শ বিএনপির : নজরুল ইসলাম খাঁন সরকার পতনের লক্ষণ স্পষ্ট হয়ে উঠছে : রিজভী
নভেম্বরেই আসতে পারে চীনের ভ্যাকসিন

নভেম্বরেই আসতে পারে চীনের ভ্যাকসিন

করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বজুড়ে মহামারি পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। প্রাণঘাতী এই ভাইরাস থেকে মানবজাতিকে বাঁচাতে ভ্যাকসিন আবিষ্কারের চেষ্টা করে যাচ্ছেন বিভিন্ন দেশের বিজ্ঞানীরা।

 

এর মধ্যেই বেশ কিছু দেশের ভ্যাকসিন উন্নয়নের কাজ অনেকটাই এগিয়ে গেছে। এর জের ধরেই চলতি বছরের নভেম্বরেই বাজারে আসতে যাচ্ছে চীনের তৈরি ভ্যাকসিন।

গত ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশেই প্রথম করোনার উপস্থিতি ধরা পড়ে। তারপর থেকেই এই ভাইরাস প্রতিহত করতে ভ্যাকসিন তৈরির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন চীনা বিজ্ঞানীরা।

সম্প্রতি চীন দাবি করেছে তাদের তৈরি ভ্যাকসিনগুলো জনসাধারণের জন্য চলতি বছরের নভেম্বরেই চলে আসতে পারে।

 

চীনের সেন্টার ফর ডিজেজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেন্সনের (সিডিসি) এক কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

বর্তমানে চীনে চারটি ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চলছে। এর মধ্যে তিনটি ভ্যাকসিনকে জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারে জন্য গত জুলাইয়ে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

 

সোমবার সিডিসির বায়োসেফটির প্রধান বিশেষজ্ঞ গুইঝেন উ রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে বলেন, ভালো ভাবেই এসব ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়াল চলছে।

এগুলো নভেম্বর অথবা ডিসেম্বরেই জনসাধারণের জন্য প্রস্তুত হয়ে যেতে পারে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তিনি।

 

তিনি আরও জানিয়েছেন, গত কয়েক মাসে এসব ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে অস্বাভাবিক কোনো প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। গত এপ্রিলে তিনি নিজেও ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে অংশ নিয়েছেন।

 

তবে তিনি তার দেহে করোনার সম্ভাব্য কোন ভ্যাকসিনটি গ্রহণ করেছেন তা উল্লেখ করেননি।

এদিকে, সম্প্রতি চীনের শীর্ষ মেডিক্যাল কর্মকর্তা গ্যাও ফু বলেছেন, চীনে প্রত্যেকের জন্য কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের প্রয়োজন হবে না।

 

এর পরিবর্তে করোনা মহামারিতে যারা সম্মুখসারিতে থেকে ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন এবং উচ্চ-ঝুঁকিতে আছেন; ভ্যাকসিন দেয়ার ক্ষেত্রে তারাই অগ্রাধিকার পাবেন।

বিশ্বে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরির প্রতিযোগিতায় এখনও নেতৃত্বের আসনে রয়েছে চীন।

 

বিশ্বে ভ্যাকসিনের সর্ববৃহৎ উৎপাদনকারী এবং গ্রাহক এই দেশটি বছরে এক বিলিয়ন ডোজ ভ্যাকসিন উৎপাদন ও সরবরাহ করতে পারে। চীনে ভ্যাকসিনের ৪০টি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.




© All rights reserved © 2011-2020 www.swadhindesh.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com