বুধবার ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

১০ রুপির ৩০টি নোট গুনতে পারেননি বর, বিয়েই বাতিল করে দিলেন কনে!

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   সোমবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২৩ | প্রিন্ট

১০ রুপির ৩০টি নোট গুনতে পারেননি বর, বিয়েই বাতিল করে দিলেন কনে!

নোট গুনতে পারেননি হবু বর। শুধুমাত্র এই কারণেই বিয়ে বাতিল করে দিলেন কনে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের ফারুখাবাদ জেলায়। বিয়ে বাতিলের পর শুরু হয় দু’পক্ষের মধ্যে তুমুল বাতবিতণ্ডা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ। তারা দু’পক্ষের মধ্যে সমস্যাটি মিটমাট করার চেষ্টা করে। কিন্তু, কোনওভাবে কনে বিয়ে করতে রাজি হননি। ফলে বাধ্য হয়েই খালি হাতে ফিরে যেতে হয় বরকে।

কী ঘটেছিল?

জানা হেছে, পুরোহিতের সন্দেহ ছিল বর মানসিক ভারসাম্যহীন। সেই সন্দেহের কথা তিনি কনের পরিবারকে জানান। এরপর বর আদৌও মানসিক ভারসাম্যহীন কিনা তা জানতে বরকে পরীক্ষা করার সিদ্ধান্ত নেন কনের পরিবার। এ জন্য তারা বরকে ১০ রুপির ৩০টি নোট গুনতে দেন। কিন্তু, বর নোট গুনতে ব্যর্থ হওয়ায় হতবাক হয়ে যান কনের পরিবার। এরপরে বিয়ের মঞ্চ থেকে উঠে পড়েন কনে। তিনি আর বিয়ে করতে রাজি হননি।

 

কনের ভাই মোহিত জানান, “একজন নিকটাত্মীয় বর ঠিক করেছিলেন। ওই আত্মীয়র ওপর ভরসা থাকায় তার বিয়ের আগে বরকেও দেখেননি। তবে বিয়ের অনুষ্ঠানে পুরোহিত বরের আচরণ দেখে সন্দেহ করেন এবং আমাদের বিষয়টি জানান। সেই কারণে বর স্বাভাবিক কি না তা জানার জন্য আমরা তাকে একটি সহজ পরীক্ষা করেছিলাম। আমি তাকে মোট ৩০টি ১০ রুপির নোট গুনতে বলেছিলাম। কিন্তু, উনি গুনতে পারেননি তাই আমার বোন তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করে।”

এদিকে, বিয়ে বন্ধের পর বর-কনের পরিবারের মধ্যে তুমুল বাকবিতণ্ডা হয়। কিন্তু, কোনওভাবেই কনে এবং তার পরিবারকে বিয়েতে রাজি করাতে পারেনি বরের পরিবার। শেষমেষ তাদের খালি হাতেই ফিরতে হয়। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ০৮:০৩ | সোমবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২৩

Swadhindesh -স্বাধীনদেশ |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement
Advisory Editor
Professor Abdul Quadir Saleh
Editor
Advocate Md Obaydul Kabir
যোগাযোগ

Bangladesh : Moghbazar, Ramna, Dhaka -1217

ফোন : Europe Office: 560 Coventry Road, Small Heath, Birmingham, B10 0UN,

E-mail: news@swadhindesh.com, swadhindesh24@gmail.com

%d bloggers like this: