ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের উপচে পড়া ভিড়

প্রথম ধাপে দেশের ২৪ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলছে। তীব্র শীত উপেক্ষা করে ভোটাররা ভোটকেন্দ্রে পৌঁছেছেন ভোট দেয়ার জন্য। সকালে কুয়াশা ও শীতের কারণে ভোটার উপস্থিতি কিছুটা কম থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার সংখ্যা বাড়তে থাকে।

সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা থেকে এ ভোটগ্রহণ শুরু হয়। সবকটি পৌরসভায় ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করে ভোট নেয়া হচ্ছে। বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলবে।

সাভার (ঢাকা)

ঢাকার ধামরাই পৌরসভা নির্বাচনে এখনো পর্যন্ত কোথাও কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। এ নির্বাচনে এবার মেয়র পদে ৩ জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৯ ও সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এ পৌরসভায় মোট ভোটার রয়েছে ৪২ হাজার ৬৪৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২০ হাজার ৫৭৯ ও ২২ হাজার ৬৫ জন নারী ভোটার রয়েছে। ২১টি কেন্দ্রে ১০৮টি ভোটকক্ষে ভোটাররা ভোট প্রদান করছেন।

মানিকগঞ্জ

মানিকগঞ্জ পৌরসভায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোথাও কোনো অপ্রীতিকার ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। সকালের দিকে ভোটারের উপস্থিতি কিছুটা কম থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে।

সোমবার সকালে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মো. রমজান আলী শহরের তিতুমীর একাডেমি কেন্দ্রে নিজের ভোট দেন। বিএনপি প্রার্থী আতাউর রহমান আতা ভোট প্রদান করেন পিটিআই (প্রাইমারি টিচার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউট)কেন্দ্রে।

এদিকে প্রথমবারের মতো ইভিএমে ভোট দিতে এসে অনেক ভোটারই সমস্যায় পড়েন। যে কারনে অনেক কেন্দ্রেই ভোটগ্রহণ বিলম্ব হচ্ছে। তবে নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা বলছেন, যে সকল ভোটারদের ইভিএম সম্পর্কে ধারণা কম তাদেরকে পোলিং অফিসাররা সহযোগিতা করছেন।

খুলনা

উৎসবমুখর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে খুলনার দাকোপ উপজেলার চালনা পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলছে। এবার নয়টি ভোটকেন্দ্রে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ করা হচ্ছে।

শীতের তীব্রতা বেশি থাকায় ভোটকেন্দ্রের সামনে ভোটারের উপস্থিতি কম। তবে তুলনামূলক চালনা কেসি পাইলট স্কুল ও শিশু কানন প্রি ক্যাডেট স্কুলসহ কয়েকটি কেন্দ্রে নারী ভোটারের সংখ্যা বেশি দেখা গেছে। বেলা বাড়লে ভোটারও বাড়বে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে ভোটের পরিবেশ সুষ্ঠু রাখতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ২০২ জন সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এর মধ্যে পুলিশ, আনসার ও বিজিবি সদস্যরা রয়েছেন।

ভোটকেন্দ্র ও নির্বাচনী এলাকায় পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর মোবাইল ও স্ট্রাইকিং ফোর্স নিয়োজিত রয়েছে। এর মধ্যে প্রত্যেক কেন্দ্রে নয়জন করে পুলিশ ও আনসার সদস্য এবং দুই প্লাটুন বিজিবি সদস্য ভোটের মাঠে নিয়োজিত রয়েছেন।

এছাড়া নির্বাচনে ৯ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োজিত রয়েছেন। তারা আচরণবিধি প্রতিপালনসহ সার্বিক বিষয়ে দায়িত্ব পালন করবেন। নির্বাচন পরিচালনায় নয়জন প্রিসাইডিং কর্মকর্তা, ৪৩ জন সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তা এবং ৮৬ জন পোলিং কর্মকর্তা নিয়োজিত রয়েছেন।

কুষ্টিয়া

কুষ্টিয়ার খোকসায় এবার প্রথমবারের মতো ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন বা ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট দিচ্ছেন ভোটাররা। সকালে পৌর ভবনসহ বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে ঘুরে ভোটারদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। তবে ভোটকেন্দ্রগুলোতে পুরুষ ভোটারের তুলনায় নারী ভোটারের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো।

কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে এ ভোটগ্রহণ শুরু হলেও ভোট কেন্দ্রগুলো ঘুরে বেশিরভাগ কেন্দ্রে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীর এজেন্ট খুঁজে পাওয়া যায়নি।

খোকসা পৌরসভা নির্বাচনে এবার মেয়র পদে দুইজন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। এরা হলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী তারিকুল ইসলাম এবং বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রাজু আহমেদ।

এছাড়া এ পৌরসভার কাউন্সিলর পদে ৩১ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ১৪ হাজার ৯৪০ জন।

চুয়াডাঙ্গা

চুয়াডাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনে পৌর এলাকার ৩৩টি কেন্দ্রে সকাল ৮টায় শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ। এই প্রথম এ পৌরসভায় ইলেকট্রনিক ভোটিং সিস্টেমে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হচ্ছে। ইভিএম পদ্ধতিতে এই প্রথম নির্বিঘ্নে ভোট দিয়ে খুশি ভোটাররা।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ৬৭ হাজার ৮০৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ৩২ হাজার ৮১৮ জন এবং নারী ভোটার সংখ্যা ৩৪ হাজার ৯৯০ জন। মোট ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৩৩টি ও ভোট কক্ষের সংখ্যা ১৯৭ টি।

নির্বাচনে মেয়র পদে ৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম মালিক খোকন (নৌকা), বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম মনি (ধানের শীষ), ইসলামী আন্দোলন মনোনীত প্রার্থী তুষার ইমরান (হাতপাখা), স্বতন্ত্র প্রার্থী মজিবুল হক মালিক মজু (মোবাইল ফোন), অ্যাডভোকেট মনিবুল হাসান পলাশ (নারিকেল গাছ), অ্যাডভোকেট সৈয়দ ফারুক উদ্দিন আহম্মেদ (জগ) এবং তানভীর আহমেদ মাসরিকী (কম্পিউটার) প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

রাজশাহী

প্রথম ধাপে রাজশাহী জেলার কাটাখালি ও পুঠিয়া পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলছে। শীতের তীব্র কুয়াশা উপেক্ষা করে সকাল থেকে লোকজন আসছেন ভোটকেন্দ্রে। ভোট দিচ্ছেন ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম)। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে ভোটার উপস্থিতি।

সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ নিশ্চিত করতে ভোটের মাঠে রয়েছে পর্যাপ্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। সকাল ১০টা পর্যন্ত কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর মেলেনি।

শায়েস্তাগঞ্জ(হবিগঞ্জ)

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে সকাল থেকেই ব্যাপক ভোটার উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। এসব কেন্দ্রে পুরুষের চেয়ে নারী ভোটারের উপস্থিতি বেশি।এই প্রথম শায়েস্তাগঞ্জের পৌরসভার ভোটাররা ইভিএমে ভোট দিচ্ছেন।

নির্বাচনে মেয়র পদে লড়ছেন আওয়ামী লীগের মাসুদউজ্জামান