শুক্রবার ১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পোশাক শ্রমিকদের বেতন, বোনাস ও বকেয়া পরিশোধের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০২৪ | প্রিন্ট

পোশাক শ্রমিকদের বেতন, বোনাস ও বকেয়া পরিশোধের দাবি

পোশাক শ্রমিকদের চলতি মাসের বেতন ও উৎসব বোনাসসহ সব বকেয়া পাওনা অবিলম্বে পরিশোধ করার দাবি জানিয়েছে গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট।

শুক্রবার (২৯ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে এ দাবি জানান সংগঠনের নেতারা।

একইসঙ্গে তারা শ্রম আইনের কার্যকর সংশোধনের মাধ্যমে অবাধ ট্রেড ইউনিয়ন অধিকার নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছেন। এছাড়া ছাঁটাই-নির্যাতন বন্ধ ও মজুরি আন্দোলনে ৪ জন শ্রমিক নিহতের জন্য দায়ীদের চিহ্নিত করে শাস্তি নিশ্চিতের দাবি করেছেন। এছাড়াও নিহতদের পরিবারকে আই.এল.ও কনভেনশন ১২১ অনুসারে আজীবন আয়ের মানদণ্ডে ক্ষতিপূরণ প্রদানের দাবি জানান।

সমাবেশে নেতারা বলেন, গার্মেন্টস শ্রমিকদের রক্ত ঘামের বিনিময়ে দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি ঘটলেও শ্রমিকদের অবদানকে অস্বীকার করা হচ্ছে। আইএলওসহ আন্তর্জাতিক শ্রম অংশীদারদের শ্রম খাতের উন্নয়নে বিভিন্ন সুপারিশ বাস্তবায়ন না করে সরকার তা পাশ কাটাচ্ছে।

তারা অভিযোগ করে বলেন, শ্রম আইনের সংশোধনীতে ট্রেড ইউনিয়ন অধিকারের চর্চাকে বাধামুক্ত করার দাবি উঠলেও ট্রেড ইউনিয়নের ওপর সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের নিয়ন্ত্রণ বাড়ানোর বিধান কৌশলে যুক্ত করা হচ্ছে। শ্রম আইনের নিপীড়ন ও বৈষম্যমূলক ধারা ১৩ (১), ২৩, ২৬, ২৭ (৩ক) অব্যাহত রেখে মহিলার পরিবর্তে ‘নারী’ শব্দের প্রতিস্থাপন জাতীয় অগুরুত্বপূর্ণ কিছু সংশোধনী গ্রহণ করে শ্রমিক পক্ষের দাবিপূরণের উদাহরণ তৈরির কৌশল নেওয়া হয়েছে।

 

তারা বলেন, প্রতি বছর ঈদের আগে শ্রমিকদের উৎসব বোনাস থেকে বঞ্চিত করা এবং শ্রমিকদের বেতন-ভাতা বকেয়া রেখে আকস্মিকভাবে কারখানা বন্ধ করার ঘটনা নিয়মিত ঘটছে। অথচ সরকার শ্রমিকদের উৎসব বোনাসসহ পাওনা পরিশোধ নিশ্চিত করতে ২০ রোজার মধ্যে বেতন-ভাতা পরিশোধের কঠোর নির্দেশ না দিয়ে মালিকদের অন্যায় করতে প্রশ্রয় দেয়।

 

শ্রমিক নেতারা আরও বলেন, বর্তমান শ্রম-প্রতিমন্ত্রীও তার পূর্বসূরিদের পথ অনুসরণ করেছেন। ৪ এপ্রিলের পর থেকে যদি সরকারি অফিসের কর্মকর্তারা ছুটিতে চলে যান আর ৯ বা ১০ এপ্রিলে গার্মেন্টস ছুটি দেওয়ার আগে যদি শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা পরিশোধ না করা হয়, তাহলে শ্রমিকরা প্রতিকারের জন্য কার কাছে যাবে? কোনো  অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে তার দায় কে নেবে?

 

তারা বলেন, অবিলম্বে পোশাক শ্রমিকদের পূর্ণ ঈদ বোনাস ও বেতন পরিশোধের জোর দাবি জানাচ্ছে শ্রমিক ফ্রন্ট।

গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি আহসান হাবিব বুলবুলের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক সেলিম মাহমুদের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সহ-সভাপতি খালেকুজ্জামান লিপন, সাংগঠনিক সম্পাদক সৌমিত্র কুমার দাস, সহ-সম্পাদক আহমেদ জীবন, অর্থ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম শরিফ, দপ্তর সম্পাদক হাসনাত কবির, রাহাত আহমেদ, আল আমিন হাওলাদার শ্রাবন, রুহুল আমিন সোহাগ, আনিসুর রহমান আনিস, শুভ আচার্য্য প্রমুখ।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ০৯:০৯ | শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০২৪

Swadhindesh -স্বাধীনদেশ |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement
Advisory Editor
Professor Abdul Quadir Saleh
Editor
Advocate Md Obaydul Kabir
যোগাযোগ

Bangladesh : Moghbazar, Ramna, Dhaka -1217

ফোন : Europe Office: 560 Coventry Road, Small Heath, Birmingham, B10 0UN,

E-mail: news@swadhindesh.com, swadhindesh24@gmail.com